সর্বশেষ

‘অঘটনের শেষ’ সেমিতে ক্রোয়েশিয়া

ই-বার্তা।।  আর কোন অঘটন ঘটতে যাচ্ছে না রাশিয়া বিশ্বকাপে। অঘটনের শেষ হোতা রাশিয়াকে আজ বিদায় করে দিলো ক্রোয়েশিয়া।ঘরের মাটিতে জায়ান্ট কিলাররাও কী সহজে ছাড়ে? বার বার পিছিয়ে গিয়েও লড়াইয়ে ফিরেছে। শেষ পর্যন্ত হার মেনেছে পেনাল্টি পরীক্ষায়।টাই-ব্রেকারে ৩-৪ গোলে জিতে ১৯৯৮ সালের পর আবার সেমিফাইনালে উঠে গেলো ক্রোয়েটরা।

 

৩১ মিনিটে রাশান গোলমেশিন ডেনিশ চেরিশেভ রাশিয়াকে প্রথমাবরের মতো সেমিফাইনালের স্বপ্ন দেখান। তবে সেই স্বপ্ন টিকে ছিলো মাত্র ৮ মিনিট। ৩৯ মিনিটে আন্দ্রে ক্রেমারিসের গোলে সমতায় ফেরে ক্রোয়েশিয়া। দ্বিতীয়ার্ধে ভাগ্যদেবী বার বার পাশে দাঁড়ায় রাশিয়ার। কখনও গোলবার রূপে, কখনও বা গোলরক্ষক আকিনফেভের রূপে। দ্বিতীয়ার্ধ গোলশূন্য কাটলে খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। এবার ভাগ্যটাকে নিজেদের মতো করে লিখে নেয় ক্রোয়েটরা। ঘড়ি যখন বলছে, খেলা চলছে ঠিক ১০০ মিনিটের তখনই ডেমাগো ভিডার গোলে এগিয়ে যায় ক্রোয়েশিয়া। কর্নার থেকে হেডে বল জালে জড়ান এ ডিফেন্ডার।

 

খেলার ২০ মিনিট বাকি থাকতে ক্রোয়েশিয়া যখন সেমির স্বপ্নে বিভোর তখনও হাল ছাড়েননি রাশিয়ার কোচ স্টানিস্লভ সেরচেশভ। বার বার গ্যালারির দিকে ফিরে দর্শকদের জাগিয়ে তুলছিলেন। ১১৫ মিনিটে মারিও ফারনান্দেজের গোলে সমতায় আবার লড়াইয়ে ফেরে রাশিয়া। জাগোয়েভের ফ্রিকিকে নিখুঁত হেডে বল জালে জড়ান তিনি।শেষ পর্যন্ত মীমাংসার জন্য খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। যেখানে জয় হলো ফেবারিটদেরই। যে পেনাল্টিতে স্পেনকে বধ করেছিলো রাশানরা সেই পেনাল্টির খড়গই আজ বড় নির্মম হয়ে দেখা দিলো স্বাগতিকদের সামনে।