সর্বশেষ

ইপিএলের মতো টি-টোয়েন্টিতেও ফেভারিট হয় নাঃ রোহিত

ই-বার্তা।।  টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সঙ্গে তুলনা করে ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘‘ইপিএলে যেমন যে কোনও দিন যে কোনও দলের কাছে হারতে বা জিততে পারে, টি-টোয়েন্টিও সে রকমই। এখানে কখন কী হবে কিছু বলা যায় না। মাঠে নেমে যে পরিস্থিতি অনুযায়ী ভাল খেলবে, সেই জয় পাবে।’’

বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ জিতবেন, টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে নামার চব্বিশ ঘণ্টা আগেও এমন কোনও আত্মবিশ্বাসের সুর শোনা গেল না ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মার গলায়। তাই বলে অবশ্য ভাবার কোনও কারণ নেই যে, দলের ছেলেদের ওপর ভরসা রাখতে পারছেন না তিনি। সে যথেষ্ট ভরসা রয়েছে।

ভরসা নেই ক্রিকেটের এই ফর্ম্যাটের ওপর। টি-টোয়েন্টি এমনই যে, এখানে হার-জিতের কোনও দাবিদার বলে কিছু হয় না। যে কোনও ম্যাচে যে কোনও দল জিততে পারে। সেই জন্যই এই টুর্নামেন্টে জিতছেনই, এমন কথা জোর দিয়ে বলতে পারছেন না রোহিত।

সোমবার কলম্বোয় তিন দলের অধিনায়কদের সাংবাদিক সম্মেলনে রোহিত বলেন, ‘‘নিজেদের ফেভারিট বলব না। কারণ, টি টোয়েন্টি ক্রিকেট এত অনিশ্চয়তায় ভরা যে, কোনও সময়ই আগে থেকে কিছু বলা যায় না। জেতার অবস্থায় থেকেও মাত্র দু-এক ওভারে ম্যাচ হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে।’’ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সঙ্গে তুলনা করে ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘‘ইপিএলে যেমন যে কোনও দিন যে কোনও দলের কাছে হারতে বা জিততে পারে, টি-টোয়েন্টিও সে রকমই। এখানে কখন কী হবে কিছু বলা যায় না। মাঠে নেমে যে পরিস্থিতি অনুযায়ী ভাল খেলবে, সেই জয় পাবে।’’

টুর্নামেন্টে খেলছে বাংলাদেশ ও আয়োজক শ্রীলঙ্কাও। এই দুই দলকেই সমীহ করে রোহিত বলেন, ‘‘দু’দলই যথেষ্ট শক্তিশালী। তাই মনে হয় সব ম্যাচেই ভাল লড়াই হবে।’’ মঙ্গলবারই প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে তারা।  বিরাট কোহালি, মহেন্দ্র সিংহ ধোনি, ভুবনেশ্বর কুমার, যশপ্রীত বুমরাকে ছাড়াই শ্রীলঙ্কায় দল নিয়ে গিয়েছেন। চোটের জন্য কুলদীপ যাদবকেও শ্রীলঙ্কায় আনতে পারেনি ভারতীয় দল।

তবে এই নিয়ে খুব একটা দুশ্চিন্তায় নেই বলে জানালেন রোহিত। বলেন, ‘‘টানা ক্রিকেট খেলতে হয় আমাদের। তাই সবাইকেই ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বিশ্রাম দেওয়া দরকার। দলের প্রয়োজনেই এটা করা হয়। পুরো শক্তির দল নিয়ে আসতে পারিনি বলে আমার কোনও আক্ষেপ নেই। দলকে নেতৃত্ব দেওয়াটা আমার কাছে সম্মানের। যে দলই হাতে থাকুক, আমি খুশি।’’

২০১৮ নিদাহাস ট্রফির সময়সূচী

• ৬ মার্চ, সন্ধে ৭টা- শ্রীলঙ্কা বনাম ভারত

• ৮ মার্চ, সন্ধে ৭টা- বাংলাদেশ বনাম ভারত

• ১০ মার্চ, সন্ধে ৭টা- শ্রীলঙ্কা বনাম বাংলাদেশ

• ১২ মার্চ সন্ধে ৭টা- শ্রীলঙ্কা বনাম ভারত

• ১৪ মার্চ, সন্ধে ৭টা- ভারত বনাম বাংলাদেশ

• ১৬ মার্চ সন্ধে ৭টা- শ্রীলঙ্কা বনাম বাংলাদেশ

• ১৮ মার্চ, সন্ধে ৭টা- ফাইনাল