সর্বশেষ

এমপি হতে চান অপু বিশ্বাস

ই-বার্তা ডেস্ক।।  আওয়ামী লীগের হয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রচারে অংশ নেয়া চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস সংসদে প্রতিনিধিত্ব করতে চান। তিনি তার সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি হতে চান।

আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি হওয়ার বিষয়ে আশাবাদী অপু বিশ্বাস । তিনি মনে করেন, প্রধানমন্ত্রী তাকে এ সুযোগ করে দিলে তিনি সংসদে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবেন।

এর পূর্বে সাংস্কৃতিক জগতের অনেকেরই সংসদে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ হয়েছে এর আগে।  আওয়ামী লীগের টিকিট নিয়ে অনেকেই এমপি হওয়ার সুযোগ ও পেয়েছেন। যারা সরাসরি ভোটে এমপি হতে পারেননি, এমন অনেককে সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি করার নজির রয়েছে। অনেকে মন্ত্রীও হয়েছেন।

কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগম, চিত্রনায়িকা সারাহ বেগম কবরীর পর এবার নৌকার টিকিটে সরাসরি ভোটে এমপি হয়েছেন নায়ক ফারুক। গত সংসদে অভিনেত্রী তারানা হালিম প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন টেকনোক্র্যাট কোটায়।

এরই ধারাবাহিকতায় এবার অনেকে আশাবাদী হয়ে উঠেছেন। জাতীয় সংসদের ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসন পেতে তুমুল প্রতিযোগিতা চলছে অনেকের মধ্যেই। ভেতরে ভেতরে চিত্রজগতের বহু অভিনেত্রী লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন।

বর্তমানে সেই দৌড়ে  নিজেকে শামিল করেছেন জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি সংরক্ষিত আসনের জন্য মনোনয়ন চাই। এ দায়িত্ব পালন করার মতো যোগ্যতা আমার আছে। আমি প্রচণ্ড পরিশ্রম করতে পারি। আছে অভিজ্ঞতাও। নারী ও শিশুদের জন্য অনেক দিন ধরে কাজ করে আসছি। প্রধানমন্ত্রী যদি আমার ওপর আস্থা রাখেন, তা হলে অবশ্যই আমি তার মূল্যায়ন করব।’

বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আইনসভা জাতীয় সংসদের সদস্য সংখ্যা ৩৫০। যার মধ্যে ৩০০ জন সংসদ সদস্য জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়ে থাকেন। বাকি ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসন। সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্যগণ নির্বাচিত ৩০০ সংসদ সদস্যের ভোটে (পরোক্ষ নির্বাচন পদ্ধতিতে) নির্বাচিত হন।

প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারে নায়ক ফেরদৌস, রিয়াজের পাশাপাশি নায়িকা পপি, অপু বিশ্বাস, তারিন সোচ্চার ছিলেন। তারা দেশের বিভিন্ন সংসদীয় আসনে গিয়ে নৌকার প্রার্থীদের পক্ষে প্রচারে অংশ নেন।

ই-বার্তা / রেজওয়ানুল ইসলাম