সর্বশেষ

কারাগারের চুরির ঘটনায় মার খেলেন সাংবাদিক

ই-বার্তা ডেস্ক ।।   পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কারাগার থেকে বিপুল পরিমাণ গম পাচারের সময় তা জব্দ করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। এ সময় দৈনিক যুগান্তরের ফটো সাংবাদিক শামিম আহম্মেদ ছবি তোলার চেষ্টা করলে কারারক্ষীরা তাকে বেধড়ক মারপিট করে।

 

খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যান বরিশালের সাংবাদিক নেতারা। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তারা। ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় জড়িত ৫ কারারক্ষীকে সাময়িক বরখাস্ত করে কারা কর্তৃপক্ষ।

 

গম পাচারে ব্যবহৃত ২টি ভ্যানসহ ২ চালককেও আটক করা হয়। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেয় পুলিশ।

 

নির্যাতিত ফটো সাংবাদিক শামিম আহমেদ বলেন, ‘জেলগেটে গম পাচার হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে জেলগেটে আসি। পাচারের সময় আমি ছবি তুলতে গেলে ৩ জন সিভিল ড্রেসে থাকা কারারক্ষী আমাকে মারধর শুরু করে।’

 

সাংবাদিক নেতা আক্কার ফারুক শাহিন বলেন, ‘জেলারের সম্পর্কে একটা কথা উঠেছে এর সঙ্গে তার লিংক রয়েছে। আমরা তাকেও তদন্তের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।

 

বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার প্রশান্ত কুমার বণিক বলেন, ‘ঘটনার সত্যতা আছে। সেই আলোকে আমরা ইতিমধ্যে ৫ জন কারারক্ষী যারা এই কাজে জড়িত তাদের সাসপেন্ড করেছি।’

 

বরিশাল বিভাগ ডিআইজি প্রিজন্স মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা উর্ধ্বতন মহলে বিষয়টি জানিয়েছি। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা হবে।’

ই-বার্তা /  তামান্না আলী প্রিয়া