সর্বশেষ

কাশ্মীর ইস্যু ভারতের একান্ত ব্যক্তিগত বিষয়ঃ সুষমা স্বরাজ

ই- বার্তা ডেস্ক ।।   ”জম্মু-কাশ্মীর ইস্যুটি আমাদের একান্তই নিজস্ব বিষয়” শনিবার ওআইসির ৪৬তম অধিবেশনে কাশ্মীর বিষয়ে গৃহীত প্রস্তাবনায় ভারতের কড়া সমালোচনা করলে  ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এ মন্তব্য করেন ।

এর আগে গত শুক্রবার ওআইসি’র সভায় গিয়ে সরাসরি পাকিস্তানের নাম না নিলেও  কড়া আক্রমণ করে সুষমা বলেন, যে সব দেশ সন্ত্রাসকে প্রশ্রয় দেয় তাদের বিরুদ্ধে অন্য দেশ গুলির ঐক্যবদ্ধ হওয়া উচিত।
তিনি আরো বলেন, ‘আমরা যদি মানবতাকে রক্ষা করতে চাই, তাহলে যে সব দেশ জঙ্গিদের আশ্রয় দেয়, অর্থ সাহায্য করে তাদের এ ধরনের কাজ করা থেকে সরে আসার বার্তা দেয়া উচিত।  সন্ত্রাস এবং চরমপন্থার দু’টি আলাদা নাম আছে। কিন্তু এই দু’টিই ধর্মের ভুল ব্যাখ্যা করে তৈরি হয়,’।

এছাড়াও বৈশ্বিক জঙ্গিবাদ রুখতে এবং গত মাসে পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলার পর ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার বাড়তে থাকা জটিলতা মোকাবেলা করতে ওআইসি’কে ভারতের সঙ্গে একসাথে কাজ করার আহ্বান জানান সুষমা।

সুষমার এই ভাষণের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই শনিবার কাশ্মীর প্রসঙ্গে নিজেদের একটি প্রস্তাবনা পেশ করে ওআইসি।  সেখানে ভারতের কাশ্মীর নীতির কড়া সমালোচনা করে সংস্থাটি।  অভিযোগ করে, ২০১৬ সাল থেকে কাশ্মীরে আরও বেশি বর্বর আচরণ করছে ভারত।  এছাড়া নিজেদের বক্তব্যে ‘ভারতীয় জঙ্গিবাদ’র মতো শব্দও ব্যবহার করে তারা।

প্রস্তাবনায় ওআইসি বলে, ভারতীয় বাহিনী অকারণে কাশ্মীরিদের আটক করছে।

ভারতের সমালোচনার পাশাপাশি ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে দ্রুত ফিরিয়ে দেয়ার জন্য পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রশংসা করা হয় ওআইসি’র পক্ষ থেকে।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বানের জবাবে ওআইসির এমন বক্তব্যে ক্ষিপ্ত ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।  মন্ত্রণালয় থেকে প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় সুষমা স্বরাজ বলেন, ‘কাশ্মীর নীতি ভারতের একান্ত নিজস্ব বিষয়।  এ ব্যাপারে আমাদের অবস্থান আগের জায়গায়ই আছে আর এটা সবাই জানে।  আমরা আবারও বলছি, জম্মু ও কাশ্মীর ভারতের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ এবং এর নিরাপত্তাও ভারতের একান্তই অভ্যন্তরীণ বিষয়’।  

ই-বার্তা / শাহাদাৎ ছৈয়াল