সর্বশেষ

বিএনপি জামায়াতের ২২ জনকে মনোনয়ন দিবে জানতাম নাঃ ড. কামাল

ই-বার্তা ডেস্ক।।  একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিশাল ব্যবধানে হারের লজ্জায় পড়তে হয় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে।  যুদ্ধাপরাধী দল জামায়াতের সাথে একাত্বতা প্রকাশ করার কারনে জনগন তাদেরকে প্রত্যাখান করেছে বলে অনেকের ধারনা।       

এ বিষয়ে গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন বলেন, জামায়াতকে সাথে নিয়ে রাজনীতি করার কোনো ইচ্ছা নেই।  দলটির সঙ্গ ছাড়তে বিএনপিকে চাপ দেওয়ার কথাও জানান তিনি।  ড. কামাল হসেন বলেন, তাড়াহুড়োয় ঐক্যফ্রন্ট করতে গিয়ে অনিচ্ছাকৃত ভুল-ত্রুটি সংশোধন করে ঐক্যফ্রন্টকে আরও সুদৃঢ় করা হবে। 

শনিবার রাজধানীর আরামবাগে গণফোরামের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান তিনি। জামায়াতকে মনোনয়ন দেয়ার বিষয়ে বলেন, জামায়াতের সঙ্গে আমাদের অতীতে যেটা হয়েছে, সেটি অনিচ্ছাকৃত ভুল।  তারা যে  জামায়াতের ২২ জনকে ধানের শীষে মনোনয়ন দেবে, সেটি আমরা জানতাম না।  একাদশ সংসদ নির্বাচন নিয়ে গনফোরাম সভাপতি বলেন, সরকারি দল ছাড়া আর কেউ বলছে না যে নির্বাচন সুষ্ঠ হয়েছে।  এ সময় আগামী দু-তিন মাসের মধ্যে পুনঃনির্বাচনের দাবি জানান তিনি।

গণফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকের পর দলটির পক্ষ থেকে গনমাধ্যম কর্মীদেরকে একটি লিখিত বক্তব্য দেওয়া হয়।  সেখানে বলা হয়, ‘তাড়াহুড়ো করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করতে গিয়ে অনিচ্ছাকৃত যেসব ভুল-ত্রুটি হয়েছে।  তা সংশোধন করে ভবিষ্যতের জন্য সুদৃঢ় জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে’।

বক্তব্যে আরও বলা হয়, আগামী ২৩ ও ২৪ মার্চ ঢাকায় সংগঠনটির জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। এদিন কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় গণফোরামের সংগঠনকে আরও শক্তিশালী করার প্রতি বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে।  দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা খুব শীগ্রই জেলায় জেলায় সাংগঠনিক সফর শুরু করবেন।

ই-বার্তা/মোঃ সালাউদ্দিন সাজু