সুলতানা কামাল সবসময় কড়া কড়া কথা বলে দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করেন: তথ্যমন্ত্রী

ই-বার্তা ডেস্ক।।  বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সভাপতি অ্যাডভোকেট সুলতানা কামালের সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, সুলতানা কামাল সবসময় কড়া কড়া কথা বলে দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করেন।

রোববার সচিবালয়ে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। ক্ষমতায় গেলে রাজনীতিবিদরা পরিবেশের কথা বেমালুম ভুলে যান, শুধু ভুলে যাওয়া নয়, কখনও কখনও তারা বৈরি অবস্থানও গ্রহণ করেন’-সুলতানা কামালের এ বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে সাবেক পরিবেশ ও বনমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, আমি পরিবেশ বিজ্ঞানের ছাত্রও বটে।

সুলতানা কামালের প্রতি যথাযথ সম্মান রেখেই বলতে চাই, তিনি সবসময় কড়া কড়া কথা বলে দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করেন। তিনি যেভাবে ঢালাওভাবে কথাটি বলেছেন এটি, কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। সুলতানা কামালকে তথ্যের ভিত্তিকে কথা বলার আহবান জানান হাছান মাহমুদ। বলেন, আমি তাকে একটু ডাটাগুলো দেখার জন্য সবিনয়ে অনুরোধ জানাব।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার আগে বাংলাদেশে বনভূমির পরিমাণ ছিল ৯ শতাংশ এখন সেটি ১২ দশমিক ৭ শতাংশ। বেশ কয়েক শতাংশ বেড়েছে। ২০০৯ সালে সরকার গঠনের পর ৩০ শতাংশ শিল্প কারখানায় ইটিপি ছিল, এখন সেটি ৮৫ শতাংশের বেশি শিল্পকারখানায় ইটিপি আছে।

সুন্দরবনে কার্বন স্টক আগের চেয়ে বেড়েছে জানিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, আমি সবিনয়ে সুলতানা কামালকে অনুরোধ জানাব এই ডাটাগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখার জন্য। এগুলো আমার দেয়া ডাটা নয়, পৃথিবীর বিভিন্ন ক্রেডিবল অর্গানাইজেশন এই ডাটাগুলো তৈরি করেছে। এগুলোর দিকে তাকালে তিনি তার ভুল বুঝতে পারবেন।

তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, সুলতানা কামাল নিজে দেখতে না পেলেও জাতিসংঘ কিন্তু লক্ষ্য করেছে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশে পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে অনেক কাজ হয়েছে। এজন্য তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ পুরস্কারে ভূষিত করেছে।